RSS

দেশ পরিচিতি নাইজার

07 Jan

আফ্রিকার পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত সম্পূর্ণ স্থল বেষ্টিত রাষ্ট্রটি নাইজার। দেশটির শতকরা ৮০ ভাগ এলাকা জুড়ে রয়েছে সাহারা মরুভূমি।

ঐতিহাসিক পটভূমি

নাইজারের পলীয় যুগের সন্ধান পাওয়া গেছে। উপনিবেশকারীদের আগমনের পূর্বে এখানে অনেক রাজত্বের পত্তন হয়েছিল। ইউরোপীয়রা সর্বপ্রথম আসে ১৮ শতকের শেষ দিকে। ১৮৮৩ থেকে ১৮৯৯ সাল পর্যন্ত দেশটি ফ্রান্সের দখলে ছিল। ১৯০১ সালে নাইজার একটি সামরিক এলাকায় পরিণত হয় এবং ১৯০৪ সালে ফরাসি পশ্চিম আফ্রিকার একটি অংশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। নাইজার ১৯৫৮ সালের ১৮ ডিসেম্বর ফ্রান্সের একটি স্বায়ত্বশাসিত প্রজাতন্ত্র হিসেবে স্বীকৃতি পায়; ১৯৬০ সালের আনস্ট পুন স্বাধীনতা পায়। ১৯৭৪ সালের ১৫ এপ্রিল নাইজারের প্রথম প্রেসিডেন্ট হামানি দিওরি এক সামরিক অভু্যত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতাচু্যত হন। অভু্যত্থানের নেতা লে. মিনি কাউচি সংবিধান বাতিল ঘোষণা করেন, সংসদ ভেঙে দেন ও রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ করেন। পরে ১৯৯৩ সালে নাইজারে প্রথম অবাধ নির্বাচন হয়।

অবস্থান ও আয়তন

এটি ১৬০০র্০ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮০০র্০ পূর্ব দ্রাঘিমার মধ্যে অবস্থিত। নাইজারের উত্তরে আলজেরিয়া ও লিবিয়া, দক্ষিণে নাইজেরিয়া ও বেনিন, পূর্বে চাঁদ এবং পশ্চিমে বুরকিনা ফাসো ও মালি।
দেশটির আয়তন প্রায় ১২,৬৭,০০০ বর্গকিলোমিটার। আয়তনের দিক থেকে এটি বিশ্বের ২২তম বৃহত্তম দেশ।

প্রশাসনিক ব্যবস্থা

নাইজারে ৭টি বিভাগ ও ৩৬টি ডিপার্টমেন্ট আছে।

উচ্চতম ও নিম্নতম স্থান

দেশটির উচ্চতম স্থান হচ্ছে মাউন্ট গ্রিবাউন, যা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৬,৩৭৮ ফুট উঁচুতে অবস্থিত এবং নিম্নতম স্থান হচ্ছে নাইজার নদীর সীমান্তে ও সেনেগাল নদীর শুরুতে। যা সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে ৪৯০ ফুট উঁচু।

জলবায়ু
অধিক বৃষ্টিপাতের কারণে নাইজারের দক্ষিণাঞ্চল কৃষি সমৃদ্ধ। বৃষ্টি না হওয়ায় দেশটির উত্তরাঞ্চল মরুভূমিময়। এখানে তীব্র পানি সংকট রয়েছে। তবে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলাগুলোতে নাইজার নদী থেকে পানি সরবরাহ করা হয়। দক্ষিণাঞ্চালে বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৫৫৪ মিলিমিটার।

প্রধান নদী

নাইজার

প্রাকৃতিক সম্পদ

ইউরোনিয়াম, আকরিক লৌগ, কয়লা, টিন, ফসফেট।

এক নজরে

রাষ্ট্রীয় নাম : রিপাবলিক অব নাইজার

রাজধানী : নিয়ামি

জাতীয়তা : নাইজোরিয়ান

আয়তন : ১২,৬৭,০০০ বর্গ কিমি।

আন্তর্জাতিক সীমান্ত : স্থল সীমান্ত ৫,৬৯৭ কিমি এবং কোনো সমুদ্র উপকূলীয় ভূমি নেই, কারণ দেশটি স্থল বেষ্টিত।
জনসংখ্যা : ১,৫৩,০৬,২৫২ জন (২০০৯)

ধর্ম : মুসলমান ৮০%, আদিধর্মে বিশ্বাসী ও খ্রিস্টান ২০%।

মুদ্রা : কমিউনেট ফিনানসিয়ার আফ্রিকান ফ্রাঙ্ক (ঢঙঋ)

স্বাধীনতা লাভ : ৩ আগস্ট ১৯৬০ (ফ্রান্স হতে)

জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভ : ২০ সেপ্টেম্বর ১৯৬০

জাতীয় দিবস : ৩ আগস্ট

ভাষা : ফ্রেঞ্চ, হাউসা

সরকার পদ্ধতি : রাষ্ট্রপতি শাসিত

সরকার প্রধান : রাষ্ট্রপতি।

 
মন্তব্য দিন

Posted by চালু করুন জানুয়ারি 7, 2011 in জানা অজানা

 

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

 
%d bloggers like this: